এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক কোড | Airtel Balance Check Code & Special Offer

এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক কোড ও স্পেশাল অফার

আপনি কি এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করার জন্য কোড খুঁজছেন? যদি আপনি এয়ারটেল সিমে কীভাবে ব্যালেন্স চেক করে তা জানার জন্য কোড খুঁজে থাকেন, তাহলে এই অনুচ্ছেদটি আপনার জন্য।

এই অনুচ্ছেদে আমরা এয়ারটেল ব্যালেন্স কীভাবে চেক করবো এবং কীভাবে স্পেশাল অফার দেখবো সে বিষয়ে আলোচনা করবো।

এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক কোড ও স্পেশাল অফার

এয়ারটেল সিমের ব্যালেন্স চেক করার জন্য আমরা প্রতিনিয়ত খুঁজে থাকি। কেননা, আমাদের দেশের একজন ব্যক্তি প্রায় ৩-৪ প্রকারের সিম ব্যবহার করে। কেউ জিপি সিম ব্যবহার করে, আবার কেউ টেলিটক সিম ব্যবহার করে, আবার কেউ এয়ারটেল সিম ব্যবহার করে।

যারা অনেক সিম ব্যবহার করে থাকে, তারা প্রতিনিয়ত ব্যালেন্স চেক করার জন্য বিভিন্ন টেলিকমের কোড সার্চ করে থাকে। কেননা, এতো গুলো সিমের বিভিন্ন প্রকারের কোড মনে থাকেনা। তাই আমরা আপনাদের সুবিধার্থে কীভাবে এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করে এবং তার জন্য কি কোড ব্যবহার করা হয়, সে সম্পর্কে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করছি।

এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক কীভাবে করবো?

এয়ালটেল ব্যালেন্স চেক করার জন্য মূলত দুইটি উপায় রয়েছে। একজন এয়ারটেল সিম ব্যবহারকারী চাইলেই তার সিমের ব্যালেন্স চেক করতে পারেন। মোবাইল ফোন অনুসারে উপায়গুলো আলাদা হয়ে থাকে।

একজন এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারী চাইলেই প্লে-স্টোর থেকে এয়ারটেল অ্যাপ ইন্সটল করতে পারেন। তারপর সেই অ্যাপে লগইন করে সরাসরি ব্যালেন্স চেক বাটনে ক্লিক করলেই এয়ারটেল সিমের ব্যালেন্স চেক করা যায়।

অপরদিকে, একজন বাটন মোবাইল ব্যবহারকারী ইচ্ছে করলেই অ্যাপ ইন্সটল করতে পারবেন না। বাটন মোবাইল ব্যবহারকারীদের জন্য কিছু কোড রয়েছে, যা প্রেস করলে আপনি খুব সহজেই এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

নিচের আলোচনায় আমরা আপনাদের জানাতে পারবো কিভাবে আপনি এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

এন্ড্রয়েড ব্যবহার কারীদের ক্ষেত্রে

যারা যারা এন্ড্রয়েড মোবাইল বা স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন, তাদের ক্ষেত্রে মূলত দুইভাবে এয়ারটেল সিমের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। নিচে এই দুই প্রক্রিয়ায় যেভাবে ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন তা উল্লেখ্য করা হলো-

প্রক্রিয়া-১ঃ ডাউনলোড এন্ড্রয়েড অ্যাপ

এই প্রক্রিয়ায় যখন কোনো এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারী ব্যালেন্স চেক করতে যাবেন, তখন একটি অ্যাপের সহায়তা নিতে হবে। এই অ্যাপটি গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড ও ইন্সটল করতে হবে। এই অ্যাপটি My Airtel – Bangladesh নামে গুগল প্লে-স্টোর থেকে পেয়ে যাবেন। এই অ্যাপটি আপনার মোবাইলে ইন্সটল করার পর নিচের মতো একটি ইউজার ইন্টারফেস পাবেন।

এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক

উপরের ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন, যে আপনার ব্যালেন্স আপনার মোবাইল স্ক্রিনে দেখাচ্ছে। যখন আপনি এই অ্যাপটি ইন্সটল করবেন, আপনি প্রথম ব্যবহারকারী হলে আপনাকে এই অ্যাপে আপনার এয়ারটেল নম্বরটি বসিয়ে লগইন করে নিতে হবে।

অপরদিকে আপনি যদি এই অ্যাপ ইন্সটল করতে না চান, তাহলে এয়ারটেলের কিছু কোড রয়েছে যার মাধ্যমে ডায়াল করলেই আপনার ব্যালেন্স দেখাবে। নিচে একটি ছক দেওয়া হবে, যে ছকে সকল মোবাইল ব্যবহারকারীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

প্রক্রিয়া-২ঃ ডায়াল *৬৬৬#

এই প্রক্রিয়ায় যেকোনো মোবাইল ব্যবহারকারী কোনো রকম সহযোগীতা ছাড়াই সরাসরি কোড ডায়াল করেই এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। সরাসরি ব্যালেন্স চেক করার জন্য *৬৬৬# নম্বরে ডায়াল করলেই যেকোনো মোবাইল ব্যবহারকারী তাদের সিমের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

নিচে একটি এয়ারটেল সিমের বিভিন্ন ইউএসএসডি কোডের লিস্ট দেখানো হলো যা ব্যবহার করে আপনি বিভিন্ন প্রকারের সেবা পেতে পারেন।

একক ইউএসএসডি কোডসার্ভিস সমূহ
*১#ব্যলান্স চেক/বকেয়া বিল
*২#নিজ মোবাইল নাম্বার দেখা
*৩#ডাটা এমবি চেক
*৪#ইন্টারনেট প্যাক কেনা
*৫#জনপ্রিয় ভ্যাস বন্ধ ও চালু
*৬#নিজ প্যাকেজ ও কল ট্যারিফ
*৭#প্রমোশনাল এসএমএস বন্ধ ও চালু
*৮#প্রিপেইড এয়ার ক্রেডিট
*৯#সকল ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস বন্ধের রিকোয়েস্ট
*০#মিনিট বান্ডেল
এয়ারটেল ইউএসএসডি কোড

এই টেবিলের ইউএসএসডি কোড ব্যবহার করে যেকোনো মোবাইল ব্যবহারকারী তাদের এয়ারটেল সিমের সেবা পেতে পারেন।

*১২১# ডায়াল করে এয়ারটেল গ্রাহকের কি কি সুবিধা পাবেন

সকল এয়ারটেল গ্রাহক যখন কোনো সেবা চালু করে থাকেন তখন *১২১# ডায়াল করে এয়ারটেলের যেকোনো সেবা দেখতে পারবেন। *১২১# ডায়াল করে যা যা সেবা গ্রহন করতে পারবেন তার একটি লিস্ট নিচে উল্লেখ্য করা হলো-

  • অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স ও বিল চেক।
  • প্যাকেজ ও ট্যারিফ জানা
  • প্যাকেজ ও ট্যারিফ পছন্দ অনুযায়ী অফার এক্টিভেশন।
  • FnF ও প্রিয় Number যুক্ত ও লিমিট করা।
  • জনপ্রিয় ভ্যালু এড সার্ভিস চালু।
  • বিভিন্ন প্রকারের সেবা বন্ধ ও চালু করা।
  • এয়ারটেল নাম্বার থেকে অন্য এয়ারটেল নাম্বারে ব্যাল্যান্স ট্রান্সফার।

তাছাড়া *১২১# ইউএসএসডি কোডটি ব্যবহার করে আপনি এয়ারটেল সিমের অন্যান্য সেবাগুলো দেখা ও চালু করার পাশাপাশি বন্ধ করতেও পারবেন।

শেষকথা

এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করতে হলে আপনাকে এয়ারটেল সিম কিনতে হবে। তারপর যেকোনো মোবাইল দিয়ে উপরে উল্লেখিত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করার পাশাপাশি উপরের টেবিলের সহায়তা নিয়ে আপনি এয়ারটেল সিমের অন্যান্য সেবার চালু ও বন্ধ করতে পারবেন। যদি কোনো সমস্যা হয়ে থাকে এয়ারটেল ব্যালেন্স চেক করার সময় তাহলে নিচে কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না।

Leave a Comment