কীভাবে খুব সহজেই জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করবেন?

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করার জন্য আপনার মোবাইল নম্বর ও এনআইডি কার্ডের নম্বর দিলেই আপনি আপনার জিপিএফ এর হিসাব চেক করতে পারবেন।

বর্তমান ইন্টারনেটের আশীর্বাদের সুবাদে আজকাল মানুষ ঘরে বসেই বাড়ি থেকেই যেকোন একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করতে পারছে। যেকোন ব্যাংকের একাউন্টে কত টাকা রয়েছে এবং কখন কখন টাকা উত্তোলন করার হচ্ছে সবকিছুই আপনি হাতের ছোটো মোবাইল দিয়েই চেক করতে পারবেন।

আপনি যদি জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে চান, তাহলে আপনি সঠিক ওয়েবসাইটে এসেছেন। এই অনুচ্ছেদে আপনি জিপিএফ ব্যালেন্স সম্পর্কিত সকল বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবো।

জিপিএফ কি?

জিপিএফ শব্দটি এসেছে ইংরেজি “General Provident Fund” এর সংক্ষিপ্ত GPF থেকে যার অর্থ সাধারণ ভবিষ্য তহবিল। সরকার রাষ্ট্রের কাজে নিয়োজিত তথা সরকারী কর্মচারীদের ভবিষ্যতের জন্য যে উদ্বৃত্ত তহবিল জমা করে থাকে তাকে জিপিএফ বলে।

বাংলাদেশের সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য সাধারণ ভবিষ্য তহবিল (জিপিএফ) এবং প্রদেয় ভবিষ্য তহবিলের (সিপিএফ) গঠন করেছেন। এই সকল ক্ষেত্রে সুদের হার ১৩ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি সুদ প্রদান করে থাকে।

কীভাবে অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করবেন?

অনলাইনের মাধ্যমে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করা খুব সহজ। আপনি আপনার হাতের মুঠোয় থাকা মোবাইলের মাধ্যমে জিপিএফ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। অথবা আপনি আপনার কাছে থাকা এন্ড্রয়েড মোবাইল দিয়েই আপনি চেক করতে পারবেন।

জিপিএফ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করার জন্য আপনার জিপিএফের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। CAFOPFM.GOV.BD এই ওয়েবসাইটটি বাংলাদেশ সরকারের জিপিএফের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট।

এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর এনআইডি ও মোবাইল নম্বর মনে রাখতে হবে। অন্যথায়, সম্পূর্ণ কাজটি করা সম্ভব হবে না।

পূর্বে জিপিএফ সম্পর্কে সকল তথ্য জানার জন্য আর্থিক বছর শেষে অর্থাৎ জুলাই মাসের দিকে উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিসে গিয়ে জিপিএফ একাউন্ট স্লিপ সংগ্রহ করতে হতো। এই স্লিপ থেকে বোঝা যেতো আপনার একাউন্টে কত টাকা রয়েছে।

কিন্তু প্রযুক্তির আবিষ্কারের ফলে তা এই প্রক্রিয়াটি অনেক সহজ হয়ে গেছে। অনলাইন ব্যবহার করে আপনি আপনার প্রভিডেন্ট ফান্ডের ব্যালেন্স জানতে পারবেন। এই জন্য বেশি কিছু দরকার পড়বে না।

সরকারি চাকরীজীবিদের বেতন ও সুবিধা বন্টনের জন্য ইএফটি (EFT) চালু করার পর জিপিএফ (GPF) হিসাব পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট শাখার অধীনে আনা হয়। তাই এখন থেকে পেনশন ও ফান্ড ম্যানেজমেন্ট শাখা জিপিএফ ফান্ডের হিসাব নিয়ন্ত্রণ ও সংরক্ষণ করবে।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

অনলাইনের মাধ্যমে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করা খুবই সহজ একটি প্রক্রিয়া। আপনি যদি অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে তাহলে নিচে উল্লেখিত তথ্যগুলো এবং কিছু ডিভাইস লাগবে।

যেহেতু আপনি অনলাইনের মাধ্যমে আপনার জিপিএফ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে ইচ্ছুক, তাই আপনাকে একটি একটি স্মার্টফোন/ কম্পিউটার/ ট্যাব লাগবেই। আপনার নিজের না থাকলে কোনো সমস্যা নেই কিন্তু যখন আপনি ব্যালেন্স চেক করবেন, তখন এই ডিভাইসটি লাগবেই।

অনলাইন মানেই ইন্টারনেট সংযোগ থাকা। আপনার কাছে একটি স্মার্টফোন/ কম্পিউটার/ ট্যাব আছে কিন্তু আপনার কাছে ইন্টারনেট সংযোগ নেই। তাহলে আপনি অনলাইন না। আপনি অফলাইন রয়েছে। তাই অনলাইনের মাধ্যমে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে হবে আপনাকে ইন্টারনেট কানেক্টিভিটি লাগবেই।

একটি স্মার্টফোন/ কম্পিউটার/ ট্যাব এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকার পাশাপাশি আপনাকে কিছু তথ্য লাগবেই যেমনঃ এনআইডি/ স্মার্ট নম্বর এবং মোবাইল নম্বর। তবে মনে রাখবেন, পে ফিক্সেশন করার সময় যেটি ব্যবহার করেছেন সেই এনআইডি/ স্মার্ট নম্বর এবং মোবাইল নম্বর দিতে হবে।

নিচে লিস্ট আকারে সকল দরকারি তথ্য এবং দরকারি কিছু অন্যান্য ডিভাইস এবং ইন্টারনেট সংযোগ যা লাগবেই সবকিছু নিচে উল্লেখ্য করা হলো-

  • একটি স্মার্টফোন/ কম্পিউটার/ ট্যাব।
  • ইন্টারনেট কানেকশন।
  • NID / SMART ID নম্বর।
  • মোবাইল নম্বর।

উপরের তথ্য অনুযায়ী জিপিএস একাউন্ট করার সময় যে মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা স্মার্ট আইডি কার্ডের নম্বর ব্যবহার করেছেন, সেই সকল তথ্য জিপিএস ব্যালেন্স চেক করার জন্য দরকার হবে।

এই সকল তথ্য ভূল হলে আপনার একাউন্টের কোনো তথ্য দেখতে পারবেন না। কারণ অনলাইনে ভূল তথ্য কোন কাজের না। তাই আপনি নিশ্চিত হয়ে আপনার সকল তথ্য প্রদান করে আপনার জিপিএস একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করবেন।

অনলাইনে জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম

অনলাইনের মাধ্যমে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করার জন্য আপনার কাছে একটি একটি স্মার্টফোন/ কম্পিউটার/ ট্যাব থাকা লাগবে। আপনার একটি স্মার্টফোন/ কম্পিউটার/ ট্যাব ব্যবহার করে ভিজিট করুন জিপিএফের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুণ।

বাংলাদেশের জিপিএফের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটের ঠিকানা CAFOPFM.GOV.BD । এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর “GPF Information” এ ক্লিক করতে হবে। তারপর আপনার এনআইডি ও মোবাইল নম্বর দিয়ে সাবমিট করলে আপনার কাছে একটি OTP কোড আসবে। তারপর এই কোড দিয়ে ভেরিফিকেশন নিশ্চিত করে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে পারবেন।

অনলাইনের মাধ্যমে জিপিএফ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করতে হবে।

ধাপ-১

জিপিএফ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করার অনেক প্রক্রিয়া রয়েছে। আপনি অফলাইনে অফিসে গিয়ে ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন, অনলাইন থেকেও চেক করতে পারবেন এবং এসএমএসের মাধ্যমেও আপনি | GPF Balance Check করতে পারবেন। ইন্টারনেটের আশীর্বাদের ফলে ঘরে বসেই বিভিন্ন প্রকারের সরকারি সেবা গ্রহণ করতে পারি। যা পূর্বে একই প্রকারের সেবা নিতে হলে সরাসরি অফিসে ঘোরাঘুরি করতে হতো। প্রচুর সময় অপচয় হতো কিন্তু বর্তমানে সকল সরকারী সেবা পাওয়ার প্রক্রিয়া অনেকটাই সহজ হয়ে গেছে। অন্যান্য সকল সরকারি সেবার মধ্যে জিপিএস একাউন্ট ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করা প্রক্রিয়া অন্যতম।

সবার শুরুর ধাপে আপনাকে যেকোন একটি ওয়েব ব্রাউজার চালু করতে হবে। আপনি আপনার মোবাইলের যেকোনো একটি ব্রাউজার চালু করে cafopfm.gov.bd প্রবেশ করতে হবে। এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করলে নিচের মতো ওয়েবপেইজ পাবেন।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করার জন্য আপনাকে উপরে উল্লেখিত ছবির ২ নং সেকশনের “GPF Information” কার্ড থেকে Click Here বাটনে ক্লিক করতে হবে। বাকি ১, ২ নং সেকশন অন্যান্য কাজের জন্য ব্যবহার করা হয়।

ধাপ-২

প্রথম ধাপ অনুসারে GPF Information এর Click Here বাটনে ক্লিক করলে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক । GPF Balance Check করার জন্য একটি নতুন পপআপ উইন্ডো চালু হবে। এই পেইজটি সম্পূর্ণ নিচে দেখানো ছবির মতো।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

এই পেইজে আপনি “NID/Smart ID” প্রবেশ করার জন্য একটি ফিল্ড পাবেন। এই ফিল্ডে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের ১৭ ডিজিটের নম্বর অথবা স্মার্ট আইডি কার্ডের ১০ ডিজিটের নম্বর প্রবেশ করাতে হবে।

তারপর, আরেকটি ফিল্ডে ফোন নম্বর প্রবেশ করার জন্য আরও একটি ফিল্ড পাবেন, যেখানে আপনাকে মোবাইল নম্বর প্রবেশ করাতে হবে। এই কথা অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে এই নম্বরটি অবশ্যই জিপিএফ এর একাউন্ট তৈরি করার সময় দেওয়া মোবাইল নম্বর প্রবেশ করাতে হবে।

ধাপ-৩

আপনি যখন উপরের দেখানো ছবিতে আপনার মোবাইল নম্বর প্রবেশ করাবেন, তখন আপনাকে “Submit” বাটনে প্রেস করতে হবে। তারপর আপনার দেওয়া মোবাইল নম্বরে একটি OTP কোড আসবে। যা আপনার কাছে নিচের মতো একটি উইন্ডো পাবেন।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

আপনি যদি আপনার মোবাইল নম্বরটি সঠিকভাবে প্রবেশ করার তাহলে আপনার মোবাইলে OTP কোড আসবে। অন্যথায়, আপনার মোবাইলে OTP কোড আসবে না। এরপর আপনার মোবাইলে আসা OTP কোডটি উপরে ১ নং বক্সে বসাতে হবে। এই OTP কোডটি ৪ ডিজিটের হবে। এই কোডটি বসানোর পর “Submit” বাটনে ক্লিক করতে হবে।

ধাপ-৪

উপরের ধাপে যখন আপনি OTP কোড প্রবেশ করানোর পর নিচের মতো একটি উইন্ডো পাবেন। এই পেইজে আপনি Opening Balance, Subscription, Refund, Profit, Withdrawal and Closing Balance দেখতে পাবেন। ঠিক নিচের মতো।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

উপরে ছবিতে আপনি দেখতে পাচ্ছেন সাবস্ক্রাইবারে নাম এবং তার একাউন্ট নম্বর এবং অন্যান্য তথ্য আপনি এই পেইজে দেখতে পাবেন। আপনা সকল তথ্যের সুবিধার জন্য সকল ইনফরমেশন লিস্ট আকারে প্রদান করা হলো।

  • ধাপ-১ঃ প্রথমে আপনাকে জিপিএফের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। বাংলাদেশ সরকারের জিপিএফ একাউন্ট চেক করার ওয়েবসাইটের ঠিকানা হচ্ছে – cafopfm.gov.bd
  • ধাপ-২ঃ এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর এনআইডি এবং মোবাইল নাম্বার প্রবেশ করাতে হবে। অবশ্যই আপনি যে নম্বর একাউন্ট তৈরি করার সময় ব্যবহার করেছেন, সেই নম্বর ব্যবহার করবেন।
  • ধাপ-৩ঃ উক্ত মোবাইল নম্বর প্রবেশ করানোর পর আপনার মোবাইলে একটি ওটিপি (OTP) কোড আসবে। সেই ওটিপি (OTP) কোড প্রবেশ করিয়ে আপনার ভেরিফিকেশন করে নিবেন।
  • ধাপ-৪ঃ এরপর আপনাকে অর্থবর্ষ পছন্দ করে আপনার জিপিএফ ব্যালেন্স চেক জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে পারবেন।
অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

উপরে দেখনো ধাপগুলো অনুসরণ করলে আপনি খুব সহজেই জিপিএফ ব্যালেন্স চেক জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করতে পারবেন। উপরের ডান পাশের Print বাটনে ক্লিক করলে আপনি জিপিএফ সম্পর্কে সকল স্টেটমেন্ট ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। মূলত আপনি যখন জিপিএফ এর টাকা উত্তোলন করতে যাবেন তখন এই প্রিন্ট কপি ব্যবহার করা হয়। এর জন্য কোনো প্রকারের অফিশিয়াল স্বাক্ষরের দরকার হয় না।

জিপিএফ হিসাবের ক্যালকুলেটর

জিপিএফ ব্যালেন্স চেক | GPF Balance Check করার সময় আপনি চাইলে আপনার জিপিএফ একাউন্টের হিসাব করতে পারবেন। বাংলাদেশ সরকারের এই মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে জিপিএফ হিসাব করার জন্য ক্যালকুলেটর যুক্ত আছে। এই ক্যালকুলেটর সাহায্যে আপনি সাধারণ ভবিষ্য তহবিল বা জিপিএফ এর বছরের শুরুর স্থিতি ও মাসিক কর্তনের পরিমাণ দিয়ে বছরান্তে স্থিতি জানতে পারবেন।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

সারকথা

এই অনুচ্ছেদে আমরা অনলাইনের মাধ্যমে কীভাবে জিপিএফ একাউন্ট ব্যালেন্স চেক করতে পারবো। ব্যালেন্স চেক করার সময় কি করতে হবে এবং কি তথ্য দরকারি সকল তথ্য বর্ণনা করা হয়েছে। যদি কারও বুঝতে সমস্যা হয়, তাহলে অবশ্যই কমেন্ট করবেন।

জিপিএফ এর সুদের হার কত?

সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জিপিএফ তহবিলে জমা রাখা টাকার টাকার সুদের হার ১৩% করা হয়েছে।

জিপিএফ একাউন্ট কি?

জিপিএফ একাউন্ট হচ্ছে সরকারি কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের ভবিষ্যতে সুরক্ষার আশায় যে তহবিল করে থাকে, তাকে জিপিএফ একাউন্ট বলে।

জিপিএফ একাউন্টের প্রবেশ করার সময় কি?

একজন সরকারি কর্মচারী চাকুরীর মেয়াদ ২ বৎসর পূর্ণ হওয়ার পর এই তহবিলে যোগদান করা বাধ্যতামূলক। তবে একজন সরকারী কর্মচারী ইচ্ছা করলে ২ বছর পূর্ণ হবার আগেই জিপিএফ একাউন্টে প্রবেশ করতে পারবেন।

কত সালে ভবিষ্য তহবিল আইন প্রণীত হয়?

১৯৫২ সালে ভবিষ্য তহবিল আইন প্রণীত হয়।

Leave a Comment